মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মধুপুর পূজা উদযাপন পরিষদের ও সকল সনাতনির মানববন্ধন অনুষ্ঠিত ভৈরবে বিভ্রান্তিমুকল খবর প্রকাশের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন বড়লেখায় খেলাফত মজলিসের তরবিয়তী মজলিস অনুষ্ঠিত বড়লেখায় মাওলানা জাফরী’র ইন্তেকাল মৌলভীবাজার র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার ৫৮৬ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক শ্রীমঙ্গল থেকে গরু চোর আটক: ৪ গরু উদ্ধার কুলাউড়ায় ১৭৮৫ পিস ইয়াবাসহ, র‍্যাবের হাতে আটক (১) জন ভৈরবে গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-১৪ অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম(এমপি) চিরদিন বেঁচে থাকবে জনসাধারনের মাঝে-চরফ্যাশন বিএমএসএফ এক প্রবাসীর কাছ থেকে ৩ লক্ষ্য টাকা নিয়ে উধাও সিলেটের শাহজাহান প্রতারক

 আখাউড়ায় পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম’র  সমালোচনার ঝড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে: লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০, ৭.২৬ পিএম
  • ১২৫ বার পঠিত

ইসমাঈল হোসেন (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) :  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার পল্লী বিদ্যুৎ এর বর্তমান ডিজিএম জনাব আবুল বাশার।রেলওয়ে জংশন,স্থলবন্দর, ব্যবসা বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দু ছোট্ট শহর আখাউড়া।স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আখাউড়া উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়িত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করেছে।বেশ ভালই চলছিল এতোদিন।কিন্তু কয়েকমাস আগে আহমেদ শাহ আল জাবেরের বদলির পর আখাউড়া পল্লী বিদ্যুৎ এ ডিজিএম হিসেবে দায়িত্ব পান আবুল বাশার।

আখাউড়াবাসীর অভিযোগ তার খামখেয়ালিপনা,অব্যবস্থাপনা ও অযোগ্যতায় অতিরিক্ত লোডশেডিং এ অতিষ্ঠ জনগন! অভিশপ্ত এ ডিজিএম’র অতিশীঘ্রই বদলির দাবি করেন স্থানীয় বাসিন্দারা! অভিযোগ আছে যে, গাছের পাতা নড়লেই চলে যায় বিদ্যুৎ,দিনে কতোবার বিদ্যুৎ থাকেনা তা গুনে শেষ করা যাবে না। পৌরসভার মধ্যেও অসংখ্যবার কারনে অকারনে চলে লোডশেডিং।যার ফলে ফ্রিজের মালামাল নষ্ট হয়ে যায়।ইউনিয়ন গুলোর অবস্থা আরো শোচনীয়।  একবার বিদ্যুৎ চলে গেলে কখন আসবে তার ঠিক নাই। আখাউড়াবাসীর অভিযোগ নতুন ডিজিএম আসার পর থেকেই লোডশেডিং এ অতিষ্ঠ।তাছাড়া সেবার মান এখন তলানিতে।

অসংখ্যবার কল দিয়ে ও যোগাযোগ করা যায় না ডিজিএম’র সাথে।গ্রাহকের সাথে দূর্ব্যবহার করার ও অভিযোগ আছে অসংখ্য। এমতাবস্থায় এমন অযোগ্য ডিজিএম কে সরিয়ে নতুন যোগ্য ও দক্ষ ডিজিএম নিয়োগ করার জোর দাবি জানিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও  আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের সুদৃষ্টি কামনা করছে আখাউড়ার সর্বস্থরের জনগন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গ্রাহক জানান,দক্ষিণ ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামে একটি ট্রান্সমিটার দিয়ে তেল আর ধোঁয়া বের হচ্ছে। আমি ওনাকে কল করার পর কোন সমাধান না দিয়ে উল্টা বলে একটা নম্বার পাইছেন সারাদিন এইটার মধ্যেই কল দেন।আর কোন নম্বর নাই নাকি। বিলের পিছনে নম্বর আছে কল করেন যান মর্মে উত্তেজিত কন্ঠ ব্যবহার করেছেন যা একজন ডিজিএম থেকে আশা করা যায় না।

সাদ্দান হোসাইন নামে এক ফেইসবুক আইডি থেকে বৃহস্পতিবার (২৮ মে)  রাতে লাইভে এসে ক্ষোভ নিয়ে বলেন ৩ দিন ধরে অন্ধকারে আছি। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়, আমাদের আর কয়দিন অন্ধকারে থাকতে হবে? গ্রামে(বাউতলা, সেনারবাদী,উমেদপুর, ছয়ঘড়িয়া, খলাপাড়াসহ আশেপাশের এলাকায় ) বাস করা কি আমাদের অপরাধ? অতিরিক্ত লোডশেডিং এর ব্যাপারে জানতে চাইলে আখাউড়া পল্লী বিদ্যুৎ এর দায়িত্বরত ডিজিএম  আবুল বাশার লোকবলের ঘাটতি, বিদ্যুতিক লাইনে কাজ চলছে ইত্যাদি বলে তার দায় সারেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil