বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৪:২৩ পূর্বাহ্ন

আখাউড়ায় যাদের ভোটার আইডি কার্ড নেই,তাদের প্রতিও আইনমন্ত্রী’র নজর রয়েছেজেলা প্রশাসক

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০, ৬.২৬ পিএম
  • ২১০ বার পঠিত
ইসমাঈল হোসেন (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক জনাব হায়াৎ উদ-দৌলা খাঁন বলেন,মাননীয় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আখাউড়ার প্রতিটি ঘর ও প্রতিটি মানুষের খবর রাখছেন।কোনো মানুষের খাদ্য কষ্ট হবেনা।তিনি আরো বলেন, আখাউড়া একটি ব্যতিক্রম উপজেলা।রেলজংশন ও ব্যবসা বাণিজ্যের এলাকা।এখানে প্রচুর বাইরের লোক আছে।দিন মজুরসহ স্বল্প আয়ের মানুষ বেশি। অনেকের ভোটার আইডি কার্ড নেই,তাদের প্রতি আইনমন্ত্রী মহোদয়ের বিশেষ নজর রয়েছে।ঘরে খাদ্য না থাকলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মেয়রকে জানাবেন। খাদ্য পৌঁছে যাবে আপনাদের ঘরে। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে কেউ না খেয়ে থাকবেন না।
প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরণ কাজের উদ্ভোধনের সময় পুলিশ সুপার মোঃ আনিসুর রহমান বলেন,আপনি বাঁচবেন না মরবেন সেই দায়িত্ব এখন আপনার কাছে। আপনি যদি ঘরে থাকেন, আপনি যদি বাইরে বের না হন, আপনি অন্যজন থেকে যদি নিরাপদ দূরত্বে থাকেন, আপনি আমি সবাই ভালো থাকবো। তিনি আরো বলেন, করোনার কোন ঔষধ আবিষ্কার হয়নি, করোনা থেকে বাঁচার উপায় একমাত্র সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। করোনা আক্রান্ত হলে মা বাবা সন্তান স্ত্রী কেউ কাছে যেতে পারে না। তাই আপনারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।
এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশ সুপাব জনাব আনিছুর রহমান,আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা,আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ রসুল আহমেদ নিজামী,পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল,উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীন,উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভুঁইয়া,উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল মমিন বাবুল,পৌর যুবলীগের সভাপতি মনির খাঁন,পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আবু কাউছার ভুঁইয়া,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন বেগ শাপলু,সাধারন সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন নয়ন প্রমুখ।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil