বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

একজন মানবিক কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী- রুপান্তরবিডি

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল, ২০২০, ৪.৫৯ এএম
  • ৯০ বার পঠিত

এম আহসানুর রহমান ইমন:- বেনাপোলের কাস্টমস কমিশনার বেতনের টাকা তুলে কেবল বেনাপোল বন্দরে কর্মরত ১৫০জন গরীব কর্মচারীদের ত্রাণ দিয়েছেন। পরের দিন আমাদের গুণী ও মেধাবীরা তাকে বেকায়দায় ফেলার জন্য গুজব ছড়িয়ে শতশত লোক কাস্টম হাউসের গেটে জমা করে। ছবি তুলে ফেসবুকে পত্রিকায় দিয়ে তার আমলনামা উদ্ধারে নেমে গেছে।

যদি নিজেকে প্রশ্ন করি:
উনি বেতনের টাকা ও বৈশাখীভাতা কেন দিলেন?
ত্রাণ বিতরণ কাদের মধ্য করলেন?
বেনাপোলের মানুষকেই বা কেন দিলেন?
সবার আগে বেনাপোলে কেন দিলেন?
এ ঘটনায় আমরা উনার মতো দেশ সেরা কমিশনারকে কি বার্তা দিলাম?
এই সংকটে একটা বড় চাওয়ার জায়গা নষ্ট করে দিলাম?
তার মতন যারা এভাবে এগিয়ে আসবে, তাদের জন্য কি শিক্ষা রাখলাম?
আমরা কি বুঝি নিজেদের কি ক্ষতি করলাম?
অন্যের মা’কে গালি দিলে আগে ‘মা’ বলতে হয়, বেনাপেলের কমিশনার বললে কি আগে বলতে হয়?
বেনাপোল আগে কার, আমাদের না উনার?

কয়দিন আগেও তিনি কোলকাতায় গিয়ে সাসেক মিটিংয়ে বোনপোলের জন্য কী-না করেছেন? ভারত ও এডিবির কাছ থেকে বেনাপোলের জন্য সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকার প্রকল্প সুপারিশ করিয়েছেন। বিশ্বব্যাংকের সেরা পুরস্কারটাও বেনাপোলের জন্য এনেছেন। উনি চট্টগ্রামে থাকলে অন্তত বেনাপোল পাইত না। পুরা বন্দরের চেহারা বদলে ফেলছেন।
উনি বেনাপোলকে ভালোবেসেছেন আর আমরা উনাকে দিলাম জঘন্য অভিজ্ঞতা। তাও আবার মিথ্যা ও বানোয়াট ঘটনাকে রং মাখিয়ে প্রচার করে।

এরা আর যাই হোক, বেনাপোলের ভালো চায় না। ভালো মানুষগুলোকে ত্যক্ত বিরক্ত করে বেনাপোলের উপর মন বিষিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করেছে এবং ফাইনালি সফলও হয়েছে। শুনেছি, সিএন্ডএফদের নিয়ে বেনাপোল কাস্টম হাউসের ত্রাণ কার্যক্রম সামনে চালানোর পরিকল্পনা বন্ধ হয়ে গেছে।

ভালোবাসা দিয়ে ভালোবাসা নিতে হয়। আমরা শুধু নিতে চাই। জানিওনা কিভাবে নিতে হয়!

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil