শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে তেয়ারীরচরে এডভোকেট আবুল বাসারের নির্বাচনী গণসংযোগ ও মতবিনিময় সভা ভৈরবের সাদেকপুর ইউনিয়নবাসীর সাথে সরকার সাফায়েত উল্লাহ’র নির্বাচনী মতবিনিময় সভা ভৈরবে ৩ প্রতিষ্টান সিলগালা ৬০ লাখ টাকার জাল ধ্বংস বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউ কে উদ্যোগে আলোচনা সভা ও নৈশভোজ অনুষ্ঠান শয়তানের চ্যালেঞ্জ ও আল্লাহর ক্ষমার নমুনা ভৈরবে র‌্যাবের হাতে ভারতীয় ৫ লক্ষাধিক ট্যাবলেট ও ৯৭ পিস ভারতীয় কাতান শাড়ী উদ্ধার ভৈরবে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন লক্ষ্মীপুরে বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগ দেবরের বিরুদ্ধে বড়লেখা পল্লী বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিল নিয়ে গ্রাহকদের মানববন্ধন বড়লেখা মানবসেবা সংস্থার উদ্যোগে সিলিং ফ্যান বিতরণ

কমলনগরে ইউপি মেম্বার খোকনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার, উদ্যেশ্যপ্রণোধিত কাল্পনিক সংবাদ প্রকাশের তীব্র নিন্দা

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২.০০ পিএম
  • ৪২৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:
বিভিন্ন প্রকার অপকর্ম শালিশ বিচার,নিরীহ মানুষকে জিম্মি করে অর্থ আদায় ও পক্ষপাতিত্ব্যের বিরুদ্ধে বাদা দেয়ায় ইউপি সদস্য খোকনের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

সংবাদে উল্লেখ করা হয় খোকন মেম্বার সরকার থেকে ২ টি ঘর বরাদ্ধ পেয়ে একটি ঘর মেম্বার নিজে অন্যটি তার সম্পর্কিত হোসেন মাঝিকে দিয়েছেন।
মেম্বার তার প্রতিনিধি জামাল মির্জাকে দিয়ে প্রধান মন্ত্রীর প্রনোদনার টাকা পাইয়ে দেয়ার নামে অনেকের কাছ থেকে ১ হাজার টাকা করে অগ্রীম গ্রহন করেছেন।

এছাড়ামাতৃকালিন ভাতায় ৭ হাজার,বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দেয়ার নামে ৩ হাজার টাকা করে লুপে নেন। স্থানীয় রোকেয়া বেগম, আবুল কালাম, মৃত আবুল কাশেমের স্ত্রী সামছুন্নাহার নামক তিন ব্যক্তির বক্তব্য তুলে ধরা হয় প্রকাশিত ওই সংবাদে।

উল্লেখিত বক্তব্য প্রসঙে জানতে চাইলে রোকেয়া বেগম বলেন, পাঁচ বছর আগে আমার স্বামী মারা যায়। দশ বছর বয়সী ছেলে জুনাইদ ও চার বছরের কন্যা সন্তান আয়েশা দুজনই শারীরিক প্রতিবন্ধী। স্থানীয় মেম্বার খোকন আমার পারিবারিক অবস্থা বিবেচনা করে সরকারী নানান সুযোগ শুবিদা সহ আমার ছেলের প্রতিবন্ধী ভাতার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।

এতে কোন টাকা পয়শা তিনি নেননি বরং আমাকে বিভিন্ন সময় সহযোগিতা করেন।
রোকেয়া আরো বলেন, সংবাদে তুলে ধরা বক্তব্য আমার না,সাংবাদিকরা আমার বক্তব্যে মিথ্যাচার করেছে।সাংবাদিকদের সাথে আমার কোন দেখাই হয়নি,আমি তাদেরকে ছিনিওনা। এমনকি মোবাইলে পর্যন্ত কথা হয়নি।এটা নিশ্চয়ই ষড়যন্ত্র এমনটাই বললেন রোকেয়া।
এছাড়া মেম্বারের ঘনিষ্ট স্থানীয় হোসেন মাঝিকে জরিয়ে একই এলাকার

আবুল কালামের স্ত্রী সামছুন্নাহারের দেয়া বক্তবটিও সম্পূর্ণ কাল্পনিক দাবী করছেন সামছুন্নাহার।

সরকারী ঘর পাইয়ে দিবে বলে হোসেন মাঝির দশ হাজার টাকা আদায় করার নাটকীয় সে লেখাটি হুবহু তুলে ধরা হল..

সামছুন্নাহার জানান, হোসেন মাঝি
আমাকে ঘর দিবে বলে ২০ হাজার টাকা চেয়েছে। আমি অনেক কষ্ট করে ১০ হাজার টাকা যোগাড় করে দিয়েছি। বাকি টাকা দিতে পারিনি বলে আমাকে ঘর দেয়নি। অথচ সে নিজেই সে ঘর নিয়ে নিজের বসত ঘরের পাশে নির্মাণ করেছে।
এ প্রসঙ্গে সামছুন্নাহারের মুখোমুখি হলে তিনি বলেন,
হোসেন মাঝি কে? আমি তাকে ছিনিই না!
তাছাড়া কিশের দশ হাজার টাকা বিশ হাজার টাকা,আমি ঘরের ব্যপারে কারো সাথে কোন লেনদেন করিনি।
তাহলে সাংবাদিকদেরকে যে বললেন?
না সাংবাদিকদের আমি এমন কথা বলিনি
তাছারা কোন সাংবাদিক আমার কাছে আসেননি, এমনকি ফোনেও কথা হয়নি।
তবে এলাকার কেউ আমাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করছেন এমনিটিই বললেন সামছুন্নাহার।

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে হোসেন মাঝি বলছেন এলাকার ছিন্হিত ত্রাস, একাদিক অপকর্মের হোতা জয়নাল মেম্বার ও সাত্তার মাঝি সম্পূর্ণ উদ্যেশ্যমুলক ভাবে সাংবাদিকদের ভুল বুঝিয়ে একটা ডায়া মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। সংবাদে তুলে ধরা বিষয়ে তিনি চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে চরকাদিরা ৯ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য, সাবেক ৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি ও একই ওয়ার্ডের বর্তমান আওয়ামী লীগের সভাপতি খোকন মেম্বার বলেন, এলাকার কালোবাজারি একটি সিন্ডিকেট গ্রুুফ সমাজে অপকর্ম করায় আমি তাদের বিরুদ্ধে সবসময় প্রতিবাদ করি। আমার জন্য তাদের নানা অপকর্ম প্রকাশ পেয়ে যায় বলেই সাংবাদিক ভাইদের ভুল তথ্য দিয়ে ভুল বুঝিয়ে সম্পূর্ন একটা মিথা সংবাদ তুলে ধরেছে।
সরকারী ভাতা সহ ঘরের বিষয়টি ডায়া মিথ্যা দাবী করছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil