মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন

কমলনগরে ৫ জেলের অর্থদন্ড এক লাখ মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ধ্বংশ- রুপান্তরবিডি

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২২ এপ্রিল, ২০২০, ৯.২১ পিএম
  • ১১২ বার পঠিত

রোমানা তাছনিম রুমি, কমলনগর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে নিশিদ্ধ সময়ে নদীতে মাছ শিকারের দায়ে ০৬ জেলেকে অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার ২২(এপ্রিল)
উপজেলার সাহেবের হাট ইউনিয়ন চর জগবন্ধু এলাকায় কোষ্টগার্ড অস্থায়ী ক্যাম্পের সামনে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট মোঃ মোবারক হোসেন এ রায় দেন।
এ সময় অপরাধ স্বীকার করায় প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড দেওয়া হয়।
দন্ডিতরা হলেন, উত্তর ইলিশা জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের সদর ভোলার বাসিন্দা
মোঃ হিরন মাঝি(৪০)আরিফ হোসেন(৩০) আবুল কালাম(৫০) মনির হোসেন (৩০) ও শরীফ হোসেন(২০)।

অপর দু’জনের ১জন শিশু অন্যজন পতিবন্ধ হওয়াতে মুছলেকা রেখে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে কোষ্টগার্ড সূত্রে জানা গেছে।
এর আগে ২১ (এপ্রিল) মঙলবার গভীর রাতে কোস্টগার্ড মেঘনা নদীর বিশ্বরোড,বাতিরখাল,কটরিয়া,মতির হাটের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১লাখ মিটার কারেন্ট জাল, তিনটি ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও ৭জন জেলেকে আটক করে।
আটককৃত ১ লাখ মিটার কারেন্ট জাল পুড়িঁয়ে ধ্বংশ করা হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,কমলনগর উপজেলা মৎস কর্মকর্তা আব্দুল কুদ্দুছ, কোস্টগার্ড কন্টিজেন্ট কমান্ডার মোঃ মোখলেছুর রহমান ও কামাল হোসেন, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো.আকিদুল ইসলাম প্রমূখ।

কমলনগর উপজেলা কোস্টগার্ড কন্টিজেন্ট কমান্ডার মো. কামাল হোসেন জানান, মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় জেলেরা মাছ ধরছে এমন খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করে প্রায় ত্রিশ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ৩ টি মাছ ধরার নৌকা ও একমনাধিক ইলিশ ও বিভিন্ন জাতের মাছ জব্দ করে কোষ্টগার্ড । পরে মাছগুলো এলাকাবাসীর মাঝে বিতরণ করা সহ মৎস ভিবাগ কর্মকর্তার উপস্থিতিতে জালগুলো আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। জব্দকৃত নৌকাগুলো মৎস কর্মকর্তার জিম্মায় রাখা হয়েছে।
পুড়িঁয়ে পেলা জালের আনমানিক মূল্য দুই লক্ষাধিক টাকা।
মৎস্য সম্পদ রক্ষায় সরকারের উদ্যোগকে সফল করতে যে কোন ব্যবস্থা নিতে কোস্টগার্ড প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil