মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন

কর্মহীন দিনমজুরিদের পাশাপাশি প্রতিবন্ধী ও হিজড়াদের মাঝে এাণ বিতরণ করে তামান্না নুসরাত বুবলী এমপি

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০, ৮.৩৪ পিএম
  • ৯০ বার পঠিত

নাইমুল ইসলাম অপিঃ করোনার বিস্তার ঠেকাতে সরকার আবার ও সরকারি ছুটি ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে।এতে কর্মহীন দিনমজুরি মাঝে সরকারি এাণ বিতরণ অব্যহত আছে। পাশাপাশি নরসিংদির নারী সাংসদ বুবলী এমপির নিজস্ব তহবিল থেকে ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যহত আছে। কর্মহীনদের পাশাপাশি প্রতিবন্ধী ও হিজড়া সম্প্রদায়ের লোকজনের মাঝে ও ত্রাণ সামগ্রী তার লোকজন ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন। শহরের বাসাইল হিজড়া পল্লিতে ও নরসিংদী, মাধবদী শহরে ও পাড়া মহলায় তার লোকজন প্রতিবন্ধী খুঁজে খুঁজে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ টাকাও পৌঁছে দিচ্ছেন।

শারীরিক দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী মনির হাসান চোখে পানি মুছতে মুছতে বলেন, “আফায় আমাগো পাশে আছে বলে পেটে ভাত জোটে। সরকারি সহযোগিতা ও পাই। হে আল্লাহ আমাগো আফার নেক হায়াত দান কর।”

এ বিষয়ে তামান্না নুসরাত বুবলী এমপি বলেন, যেহেতু করোনা বিস্তার ঠেকাতে সরকারি ছুটি আবারও বৃদ্ধি পেয়েছে। সবাই কে আরও কিছু দিন ঘরে থাকতে হবে। নরসিংদির কর্মহীন দিনমজুরিদের পাশাপাশি, প্রতিবন্ধী, হিজড়া সম্প্রদায়ের লোকজন মধ্যে ও আমার সামর্থ্য অনুযায়ী সরকারি এাণ সামগ্রির পাশাপাশি আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ও খাদ্য সামগ্রী, নগদ টাকা পৌঁছে দিব।আমি আপনাদের জন্যই রাজনীতি করি। আমার স্বামী ও অসহায় মানুষের জন্য রাজনীতি করেছিলেন। আমাদের সকলকেই ঘরে থেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পরামর্শ ও সবার সহযোগিতা চান। এখন দেখা যাচ্ছে আপনারা অনেক ই সচেতন হচ্ছেন অনেকই হচ্ছেন না।আমার অনুরোধ আপনারা ঘরে থাকুন। জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার থাকা অবস্থায় কোন কর্ম হীন সে যেই হোক না খেয়ে থাকবে না। জেলা প্রশাসন ও নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রশাসনের সবাই কে আমার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ। নরসিংদিতে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ এর পাশাপাশি জনসমাগম হয় এমন বিভিন্ন এলাকায় জীবাণু নাশক স্পে প্রতি নিয়ত দেওয়া হচ্ছে।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil