শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ০১:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

কাউনিয়ায় যত্রতত্র গরু জবাই-কর্তৃপক্ষ নিরব দর্শক

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০, ৬.১৫ পিএম
  • ১১৫ বার পঠিত

মোঃ আরিফ শেখ, রংপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

কাউনিয়ায় স্বাস্থ্য বিভাগের উদাসীনতায় এলাকার পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য হুমকিতে পড়লেও এ যেন দেখার কেউ নেই। কর্তৃপক্ষের ভাব দেখে মনে হয় খাঁচায় বন্দি আফ্রিকার সিংহ। এলাকাবাসী কর্তৃপক্ষের কাছে অনেক আবেদন নিবেদন করেও কোন কাজ হয়নি।

সরেজমিনে উপজেলার নিজপাড়া গ্রামে বাসস্টান্ড পল্লীবিদ্যুৎ অফিস সংলগ্ন রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়কের পার্শে গরু,মহিশ,ছাগল,ভেড়া পরিবেশ সম্মত ভাবে জ্ববেহ না করা এবং বর্জ্য সঠিক ভাবে নিস্কাশন না করার কারনে পশুর বর্জ্য ও রক্ত পচে দুর্গন্ধে পরিবেশ মারাত্মক ভাবে হুমকিতে ফেলেছে। রাস্তার পাশ দিয়ে মানুষ হেঁটে যেতে এবং আশপাশের বাড়ি ঘরের লোক জন গন্ধে বমি করে ফেলে।
এখানে প্রায় ২০/২৫টি পরিবার ও পল্লীবিদ্যুৎ অফিসসহ বেশ কয়েকটি অফিস রয়েছে। দুর্গন্ধে মানুষ অফিস গুলোতে ও বাড়ি ঘরে টিকতে পারে না। এখান থেকে কুকুর, কাক, পাখির মাধ্যমে ছড়াচ্ছে নানা রোগজীবানু। এলাকায় অধিকাংশ লোক ডায়রিয়া আমাশয়সহ নানা জটিল রোগে ভুগছে। এলাকায় স্লোটার হাউজ না থাকায় কসাইরা তাদের ইচ্ছা মাফিক যেনতেন ভাবে পশু জ্ববেহ করছে।
প্রানী সম্পদ বিভাগের লোকের উপস্থিতিতে পশু জ্ববেহ করার নিয়ম থাকলেও প্রানী সম্পদ বিভাগ এ ব্যাপারে উদাসিন। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের ভাব দেখে মনে হয় খাঁচায় বন্দি আফ্রিকার সিংহ। দীর্ঘ দিন থেকে এলাকাবাসী জনশুন্য এলাকায় পশু জ্ববেহ করার ব্যবস্থা করার দাবী জানিয়ে আসলেও অদৃশ্য কারনে তা হচ্ছেনা।
এলাকায় একটি স্লোটার হাউজ নির্মানের বিষয়ে উপজেলা পরিষদে ভাইস চেয়ারম্যান আঃ রাজ্জাক কে আহবায়ক করে লোক দেখানো একটি কমিটি করা হলেও সেই কমিটি বিগত ৭ বছরেও তার বাস্তবায়ন করতে পারে নি। এলাকাবাসীর দাবী পরিবেশ রক্ষায় দ্রুত পশু জ্ববাই এর স্থানটি পরিবর্তন করার।
এ ব্যাপারে স্যানিটারী ইন্সপেক্টার আবু সাঈদ জানান, কসাইদের অনেক বলা হয়েছে তারা যেন পশুর বর্জ্যগুলো মাটিতে পুতে রাখে, তারা বলে কিন্তু করে না।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ উলফৎ আরা বেগম জানান, অভিযোগ পেয়েছি, করোনার কারনে কিছু করা যাচ্ছে না, তবে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভায় গুরুত্বপূর্ন বিষয়টি উপস্থাপন করবো। আশা করি পরিষদ থেকে স্লোটার হাউজ নির্মাণ করা সম্ভব হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil