বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৫৩ অপরাহ্ন

কুলিয়ারচরে ৫ বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ-Dailyrupantorbd

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২০, ৬.২৬ পিএম
  • ১৩০ বার পঠিত

মোঃ মিজানুর রহমান পাটোয়ারী, কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে ৫ বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় ৪ জন আহত হয়েছে বলে জানা যায় ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলার রামদী ইউনিয়নের বড়চর গ্রামের মৃত হাসেন আলী মুন্সীর ছেলে আবু কাশেম এর সহিত একই বাড়ির শাহিদ মিয়ার মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ ও মামলামোকদ্দমা চলিয়া আসছে । উক্ত বিরোধের জেরধরে গত ৪ এপ্রিল ( শনিবার ) সন্ধ্যায় আবু কাশেম ( ৫৫ ) ও তার ভাই মোঃ শহিদ মিয়া ( ৬৫ ), আব্দুল মান্নান ওরুফে মাইন উদ্দিন ( ৪৫ ), আব্দুল লতিফ ( ৪০ ) ও তার ভাতিজা মোঃ আমির উদ্দিন ( ৩৫ ) তাদের গ্রামের জামে মসজিদে মাগরিবের নামাজ আদায় করতে যায় । এ সুযোগে বাড়ীঘর প্রায় পুরুষ শূন্য থাকায় শাহিদ মিয়ার ছেলে আব্দুল আওয়াল ( ২২ ) এর নেতৃত্বে ৪/৫ জন লোক দেশীয় অস্ত্রাধী নিয়ে আাবু কাশেমের ভাতিজা রাসেল ও তার এক বন্ধুর উপর অতর্কিত হামলা করে মারধর করতে থাকে । এসময় রাসেল তাদের দেখে নেওয়ার হুমকী দিয়ে গালীগালজ করতে থাকলে হামলাকারীদের সাথে আরো ১৫/২০ জন লোক দেশীয় অস্ত্রাদী নিয়ে যুক্ত হয়ে আবু কাশেমের বাড়িতে হামলা করে তার বসতঘর সহ তার ভাই মোঃ শহিদ মিয়া ( ৬৫ ), আব্দুল মান্নানন ওরুফে মাইন উদ্দিন ( ৪৫ ), আব্দুল লতিফ ( ৪০ ) ও তার ভাতিজা মোঃ আমির উদ্দিন ( ৩৫ ) এর ৫টি বসত ঘরসহ বসত ঘরে থাকা আসবাবপত্র ও একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ভেঙ্গে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে ।
এসময় হামলাকারীরা বসত ঘরে থাকা নগদ ৩ লক্ষ টাকা, ১২ ভরি স্বর্ণালংকার, ধান চাল শুকনা মরিচ সহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকার মালমাল ও ৪ লক্ষ টাকা মূল্যের ৫ টি গরু লুট করে নিয়ে যায়। হামলায় আব্দুল লতিফ ( ৪০ ), আবু হানিফ ( ২৩ ) ও রাসেল ( ২২ ) সহ প্রতিপক্ষের আব্দুল আওয়াল ( ২৫ ) আহত হয়।

অপরদিকে ঘটনার সময় মোঃ মেরাজ মিয়া ( ৬৫ ) নামে এক বৃদ্ধ মাটিতে ঢলে পরলে স্থানীয়রা তাকে ধরাধরি করে ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যায় । পরীক্ষা – নিরীক্ষা শেষে প্রায় এক ঘন্টা পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন ।

বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনায় কুলিয়ারচর থানায় মামলা না নিলেও বৃদ্ধ মৃত্যুর ঘটনায় ওইদিন রাতে মৃত মেরাজ মিয়ার স্ত্রী মোছাঃ হেলেনা বেগমকে বাদী করে কাশেম মিয়াকে প্রধান আসামী করে ৮ জনের নাম উল্লেখ সহ ৫/৬ জনের নামে থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু করে পুলিশ। মামলা নং – ০৪ ( ৪ ) ২০২০ । মামলা রুজু হওয়ার পরদিন মামলার এজাহার নামীয় আসামী উপজেলার উছমানপুর পূর্বপাড়া গ্রামের মোঃ হাসান আলীর পুত্র মোঃ ছোটন মিয়া ( ২২ ) ও তার স্ত্রী মোছাঃ শাহানা বেগম ( ২০ ) কে তাদের ২ বছরের এক কোলের শিশু সন্তান সহ তাদের বাড়ী থেকে আটক করে কিশোরগঞ্জ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেন পুলিশ ।

এব্যাপারে এলাকাবাসী ধারনা করছে ঘটনার সময় স্ট্রোক করে হয়তো মারা যেতে পারে ওই বৃদ্ধ ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ওই বাড়িতে ঘরবাড়ি ভাংচুর হয়েছে এমটা দেখা গেছে । অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মৃত মেরাজ মিয়ার শরীরে কোন প্রকার আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি । তবে এটা হত্যা না কি স্ট্রোক করে মারা গেছে তা ময়না তদন্ত রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত মৃত্যুর কারন বলা যাবেনা ।

আবু কাশেম দাবী করেন ঘটনার সময়, তারা ৪ ভাই ও তার ভাতিজা একই গ্রামের একটি মসজিদে নামাজ আদায় করা অবস্থায় ঘটনাটি ঘটে । যার প্রমাণ মসজিদের মুসুল্লিগণ । মেরাজ মিয়া কি ভাবে মারা গেছে তা তারা বলতে পারছেনা ।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল হাই তালুকদার বলেন, মামলার এজাহার নামীয় ২ আসামীকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে । মামলাটি তদন্ত চলছে । তদন্ত শেষে ঘটনা উদঘাটন করা যাবে ।

হামলাকারীদের ভয়ে ও মামলায় গ্রেফতার হওয়ার ভয়ে করোনাভাইরাস আতংক নিয়ে আবু কাশেমের বাড়ির লোকজন পালিয়ে বেড়াচ্ছে । ৫ বাড়ি শূন্য হয়ে পরায় প্রতিপক্ষরা দফায় দফায় লুটপাট করছে বলে অভিযোগ করেন আবু কাশেম ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil