শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন

গঙ্গাচড়ার কৃষি শ্রমিক ধানকাটার জন্য সরকারিভাবে কুমিল্লায় প্রেরণ- রুপান্তরবিডি

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০, ৬.৪৮ পিএম
  • ৭৬ বার পঠিত

মোঃ আরিফ শেখ, রংপুর প্রতিনিধিঃ গঙ্গাচড়া

প্রতি বছর বোরো মৌসুমে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের জন্য রংপুর বিভাগ থেকে কৃষি শ্রমিকরা দেশের দক্ষিনাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় যেত। এবার মহামারি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক ঘরে থাকা ও সামাজিক দুরুত্ব বজায় রেখে প্রয়োজনীয় কাজে হাট-বাজার করার অনুমতি থাকলেও পরিবহন না থাকা এবং বিভিন্ন জেলা লকডাউন থাকার কারণে দক্ষিনাঞ্চলে আগাম বোরো ধান কাটতে যেতে না পারায় ওইসব জেলায় কৃষি শ্রমিকের সংকট দেখা দেয়েছে। ফলে ধান কাটা ও মাড়াই নিয়ে মহাবিপাকে পড়েছে বোরো ধান চাষীরা। শ্রমিক সংকটে ধানের যেন ক্ষতি না হয় চাষীরা যাতে ধান গোলায় তুলতে পারে সেজন্য প্রধানমন্ত্রীসহ কৃষি মন্ত্রণালয় উদ্যোগ গ্রহন করেছে। এরই প্রেক্ষিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নিয়ে সরকারি খরচে গঙ্গাচড়া উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর গঙ্গাচড়ার আয়োজনে এবং স্থানীয় এলাকার এমপি মসিউর রহমান রাঙ্গার সহযোগিতায় উপজেলার লক্ষীটারী ইউনিয়নের ৮০ জন কৃষি শ্রমিককে দুটি বাসে করে কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রামে প্রেরণ করা হয়েছে।

গত রবিবার (১৯ এপ্রিল) বিকাল ৫টায় ওই ইউনিয়নের পরিষদ মাঠ হতে শ্রমিকের হাতে কৃষি বিভাগের প্রত্যায়নপত্র, মাস্ক, খাবার, জীবানু নাশক ওষুধসহ বিভিন্ন উকরণ তুলে দিয়ে শ্রমিক প্রেরনের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক আসিব আহসান। এ সময় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্তি পরিচালক কৃষিবিদ মোহাম্মদ আলী, উপপরিচালক ড. মোঃ সরওয়ারুল হক, গঙ্গাচড়া উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলীমা বেগম, ভাইস চেয়ারম্যান সাজু আহম্মেদ লাল, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল হাদী, উপজেলা কৃষি অফিসার শরিফুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার নাঈম মোর্শেদ, রাশেদুল কবিরসহ কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্তি পরিচালক কৃষিবিদ মোহাম্মদ আলী জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে পাঠানো শ্রমিকরা যাতে ওই এলাকার লোকজনের সাথে মিলামেশা করতে না পারে সেজন্য সেখানকার দায়িত্বরত প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তার মাধ্যমে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রত্যেক শ্রমিককে আলাদা করে থাকার ও খাবার ব্যবস্থা করা হয়েছে । শ্রমিকরা সেখান থেকে মাঠে গিয়ে ধান কাটার পর আবার নিজ কক্ষে আসবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil