বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:১০ অপরাহ্ন

চরফ্যাশনে বন কর্মকর্তা কর্তৃক বিপুল পরিমান হাঙ্গর ও তিমির শুঁটকি জব্দ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৪ মে, ২০২০, ৭.৪৮ পিএম
  • ৮৭ বার পঠিত
জিহাদুল ইসলাম বিশেষ প্রতিনিধি:  ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার আহাম্মদপুরে হাঙ্গরের ও তিমির বাচ্চার শুঁটকি ও হাঙ্গরের তেল জব্দ করেছে উপজেলার মৎস্য ও বন বিভাগ কর্মকর্তারা। গত বুধবার (১৩মে) দুপুর ১২টার দিকে স্থানীয় সাংবাদিকরা আহাম্মদপুর মায়া ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সেখানে হাঙ্গরের শুঁটকি ও হাঙ্গরের তেল প্রক্রিয়াজাতকরনের স্থানটি তাদের নজরে আসে। এ সময় সংবাদিকরা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে মুঠোফোনে বিষয়টি অবগত করেন। পরবর্তীতে বিকাল ৪টার দিকে মৎস্য কর্মকর্তা ও বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তার সমন্বয়ে একটি দল উক্ত স্থানটিতে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান চলাকালীন সময়ে কয়েক মণ হাঙ্গরের ও তিমির বাচ্চার শুঁটকি ও হাঙ্গরের ২০ ব্যারেল তেল জব্দ করে। তবে অভিযান চলাকালে হাঙ্গর ও তিমির শুটকির মালিকদের পাওয়া যায়নি। স্থানীয়রা জানান, মোঃ আনোয়ার, মোঃ আলমগীর, মোঃ ইয়াছিন, ফারুক, মোঃ নাইম ও মোঃ নাজিম দীর্ঘ চার/ পাঁচ বছর ধরে এ এলাকায় হাঙ্গরের ও তিমির বাচ্চার শুঁটকি ও হাঙ্গরের তেল প্রক্রিয়াজাত করে। এ কারণে আহাম্মদপুরের মায়া ব্রিজ সংলগ্ন পুরো এলাকায় বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এদিকে হাঙ্গরের ও তিমির বাচ্চার শুঁটকি ও তেল তৈরির প্রক্রিয়ার স্থানটি বন্ধ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করায় উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন স্থানীয় জনগন। চরফ্যাসন উপজেলা বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ আলাউদ্দিন বলেন, মৎস্য পরিবেশ ও বন আইনে এভাবে হাঙ্গরের তিমির বাচ্চার শুঁটকি তৈরি ও তেল সংরক্ষণ সম্পূর্ণ বেআইনি। তাই মাছ ও তেল জব্দ করা হয়েছে। এ ছাড়াও হাঙ্গরের বাচ্চার শুঁটকি তৈরি ও তেল সংরক্ষনকারিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত আইনে মামলা করা হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil