মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন

চাল চুরির অভিযোগ রুখতে চেয়ারম্যান ইউছুফ ছৈয়াল’র কৌশলী মানববন্ধন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৩ মে, ২০২০, ৪.৫৪ পিএম
  • ১৫৩ বার পঠিত
রাকিব হোসেন ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি : করোনা সংক্রমণ এড়াতে সরকারের পক্ষ থেকে সামাজিক দূরত্ব বাজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হলে ও তাতে লেশমাত্র মানছেন না স্থানীয় সরকারের ইউনিয়ন পরিষদ (প্রতিনিধি) চেয়ারম্যান ইউসুফ ছৈয়াল।জনতার লাগামহীন অভিযোগে অবিযুক্ত আলোচ্য ওই চেয়ারম্যান সরকারকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কৌশলে নিজমনা কিছু লোককে জড়ো করে লোকদেখানো মানববন্ধনের কাজটিও সেরেছেন ইতোমধ্যে। লক্ষ্মীপুরের চর রমণীমোহন ইউনিয়ন থেকে মধ্যরাতের ভোটে নির্বাচিত এই চেয়ারম্যান সম্প্রতি জেলেদের জন্য বরাদ্ধকৃত ভিজিএফ’র চাল আত্মসাতের অভিযোগে অভিযুক্ত হওয়ার বিষয়টি এখন গোটা নেট দুনিয়ায় ভাসমান। আলোচনার হিড়িক পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। আর এ অভিযোগ থেকে নিজেকে বাঁচাতে একটি দূর্ণীতির লাগামটানতে গিয়ে আরেকটি দূর্ণীতিতে জরিয়ে পড়েছেন ইদুর দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া হাই বোল্টেজ খেলোয়ার দূর্ণীতিবাজ ওই চেয়ারম্যান। অভিযোগ রয়েছে, চেয়ারম্যান তার অনুসারী এবং এলাকার নিরীহ লোকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে সাজানো মানববন্ধনে উপস্থিত করিয়েছেন। যদিও এলাকার লোকজন করোনাভাইরাসের ভয়ে জড়ো হতে চাননি বলেও একাধিক সূত্র জানিয়েছেন। তবে প্রভাব খাটিয়ে এ মানববন্ধনটি তিনি করিয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে অহরহ। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত না করে এমন মানববন্ধনের আয়োজন করার কারণে ওই এলাকায় করোনাভাইরাসের সংক্রণের ঝুঁকিতে পড়তে পারে এমন আসংখ্যা স্থানীয়দের। যদিও করোনা সংক্রমণ রোধ কমিটির সভাপতি স্ব-স্ব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান। একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে এমন আয়োজন করায় এলাকার সচেতন মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সমালোচনার ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। নিজের অপকর্ম রুখতে লোকজন জড়ো করার ঘটনায় তার বিচার দাবি করছেন এলাকার ওয়াকিবহাল মহল।
এছাড়া চাল আত্মসাতের ঘটনায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন তারা। জানা গেছে, চররমনী মোহন ইউনিয়নে জেলেদের জন্য বরাদ্ধকৃত সরকারি চাল মজুদ ও বিক্রি করার দায়ে শনিবার (৯ মে) বিকালে ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ ছৈয়ালের ভাগিনা সোহাগ ও তাঁর অনুসারী হারুন মাঝি নামে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে তাদের বাড়ি থেকে ২১ মন চাল উদ্ধার করে জব্দ করা হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ, চেয়ারম্যান ছৈয়ালের মাধ্যমে ওই ইউনিয়নের তিন হাজার জেলেদের মধ্যে চাল বিরতণ করা হয়। জেলেদের মধ্যে বরাদ্ধকৃত চাল পরিমাণে কম দিয়ে তা আত্মসাৎ করেছেন তিনি। এলাকার কয়েকজনের কাছেও সরকারি এসব চাল বিক্রি করা হয় বলে জানা যায়। প্রতিমন ১৫০০-১৬০০ টাকা হারে কিনে নেয়ার কথা জানান অনেকে। ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে যখন অসহায় জেলেদের চাল অত্মসাতের অভিযোগ ওঠে তখন তিনি নিজেকে বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠেন। অভিযোগটি মিথ্যা দাবি করে নিজের সমর্থিত ইউপি সদস্য ও লোকদের দিয়ে ইউনিয়নের অস্থায়ী কার্যালয়ের (নিজ বাড়ি) সামনে মঙ্গলবার দুপুরে মানববন্ধনের আয়োজন ও করান অভিযুক্ত ওই জনভক্ষক চেয়ারম্যান। মানববন্ধন কর্মসূচিতে চেয়ারম্যানে পক্ষে বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য মো. শাহজাহান, দুলাল হোসেন, আবদুল খালেক, নজরুল ইসলাম, ইয়াকুব আলী, ইমাম হোসেনসহ ইউনিয়নের তার সমর্থিত কয়েকজন লোক। তবে মানববন্ধনে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত না থাকলেও তিনি আয়োজিত মানববন্ধনের অর্থায়ন করেছেন বলে জানা গেছে। লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল জানান, মানববন্ধন হওয়ার পর শুনেছি। তবে এই মুহুর্তে এমন জনসমাগম করা ঠিক হয়নি। আয়োজকদের কাছ থেকে এটার ব্যাখ্যা চাওয়া হবে। মানববন্ধনে বক্তারা দাবি করেন, চররমনী মোহন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবু ইউসুফ এর বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়ষন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil