শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে তেয়ারীরচরে এডভোকেট আবুল বাসারের নির্বাচনী গণসংযোগ ও মতবিনিময় সভা ভৈরবের সাদেকপুর ইউনিয়নবাসীর সাথে সরকার সাফায়েত উল্লাহ’র নির্বাচনী মতবিনিময় সভা ভৈরবে ৩ প্রতিষ্টান সিলগালা ৬০ লাখ টাকার জাল ধ্বংস বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউ কে উদ্যোগে আলোচনা সভা ও নৈশভোজ অনুষ্ঠান শয়তানের চ্যালেঞ্জ ও আল্লাহর ক্ষমার নমুনা ভৈরবে র‌্যাবের হাতে ভারতীয় ৫ লক্ষাধিক ট্যাবলেট ও ৯৭ পিস ভারতীয় কাতান শাড়ী উদ্ধার ভৈরবে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন লক্ষ্মীপুরে বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগ দেবরের বিরুদ্ধে বড়লেখা পল্লী বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিল নিয়ে গ্রাহকদের মানববন্ধন বড়লেখা মানবসেবা সংস্থার উদ্যোগে সিলিং ফ্যান বিতরণ

ছাগলের পেটে মানবশিশু- রুপান্তরবিডি

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২০, ৫.৪৬ পিএম
  • ১৩৩ বার পঠিত

রুপান্তর নিউজ ডেস্ক: পৃথিবীতে যে কত অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটে চলেছে প্রতিনিয়ত তারই একটি উদাহরণ হতে পারে ছাগল। ভারতের কর্ণাটকের শোলাপুরের একটি গ্রামে ছাগলের পেটে জন্ম নিলো ছোট্ট দু’টি শাবক। কিন্তু হুবহু মানুষের রূপ। ওই ছাগল শাবকদের শরীরটা যেন পুরো স্টিলের। আর চোখ, নাক, মুখ, বুক, পেট, হাত, পা সব কিছুতেই অবিকল মানবশিশুর আদল। শুধুমাত্র কান আর পায়ের পাতা দেখতে তার মায়ের মতো। অর্থাৎ ছাগলের একমাত্র চিহ্ন রয়েছে সেই দুটি অঙ্গে। আর বাকি ৭০ শতাংশই মানুষের চিহ্ন। অদ্ভূত এই ঘটনায় স্তম্ভিত এলাকার মানুষ শাবক দু’টি দেখতে ভিঁড় জমান। কেউ বলেন, এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। কেউ আবার এর পেছনে অলৌকিক কোনও বস্তুর আশঙ্কায়, শাবক দু’টিকে মেরে ফেলার কথা বলেন। ছাগলটি যে ব্যক্তির গৃহপালিত তিনি জানান, ‘চার বছর ধরে ছাগলটি আমার কাছে রয়েছে। এর মধ্যে সে ১০টি বাচ্চা দিয়েছে। প্রত্যেকটা বাচ্চাই স্বাভাবিক। ’ পশুপালন বিভাগের সহ অধিকর্তা ড. দেবা দাসের বক্তব্য, ‘জিনগত সমস্যার জন্য বা কোনও সংক্রমণের কারণে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। ’ মানুষরূপী ছাগল ছানা দু’টিকে সংরক্ষণ করে মাইসোর দশেরা প্রদর্শনীতে দেখানো হবে বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil