রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন

দশমিনায় ইউপি চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সাল অবশেষে বরখাস্ত

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০, ৪.১৪ এএম
  • ১৪৪ বার পঠিত

মোঃ আরিফুর রহমান ঝন্টু, দশমিনা প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালীর দশমিনায় উপজেলায় ভিজিডি চাল আত্মসাধের অভিযোগে ০২নং আলীপুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সাল আহমদ’কে রবিবার স্থানীয় সরকার বিভাগের মোহাম্মদ ইফতেখার চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে সাময়িকভাবে বরখাস্ত আদেশ জারি করা হয় ।

প্রজ্ঞাপন উল্লেখ করা হয়, ০২নং আলীপুরা ইউপি চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সাল এর বিরুদ্ধে ভিজিডি চাল বিতরন না করে ভুয়া স্বাক্ষর গ্রহন, চাল আত্মসাধের উদ্দেশ্যে উপকারভোগীদের ভিজিডি কার্ড নিজের কাছে জমা রাখা, চাল বিতরনের দিন ট্যাগ অফিসারকে অবহিত না করা, সুবিধাভোগীদের সাথে খারাপ আচরণ এবং চাল বিতরন কার্যক্রমে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদেরকে সম্পৃক্ত না করার অভিযোগ তদন্তে প্রমানিত হয়েছে,  এছাড়া জেলা প্রশা ক ইউপি চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সালের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহনের সুপারিশ করেন ।

বাদশা ফয়সাল কতৃক সংঘটিত অপরাধমূলক কার্যক্রম পরিষদসহ জনস্বার্থের পরিপন্থী। বিবেচনায় ( ইউনিয়ন পরিষদ )

আইন ২০০৯ এর ধারা ৩৪(১) অনুুুযায়ী উল্লিখিত ইউপি চেয়ারম্যানকে তারঁ স্বীয় পদ হতে ২৪ জুন থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো । উল্লেখ্য বিগত দুই বছর ধরে ভিজিডির চাল আত্মসাতসহ বিভিন্ন নারী কেলেঙ্কারীতে জড়িয়ে পড়েন ইউপি চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সাল।

দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ তানিয়া ফেরদৌস অসুস্থ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি । বাদশা চেয়ারম্যান ২০১৬ সালে আওয়ামী লীগ থেকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই অনেক বিতর্কিত কর্মকান্ডের সাথে জড়িয়ে পরেন ।পরে ২৪ জুন বাদশা ফয়সাল চেয়ারম্যান কে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়। পরে রবিবার সকালে প্রকাশ আসে।

এ বিষয়ে আলীপুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার বাদশা ফয়সাল আহমেদ বলেন, বরখাস্তের বিষয়টি অফিসিয়ালভাবে তিনি জানেন না।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil