বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:১৫ অপরাহ্ন

বাগেরহাটে প্রবীন সাংবাদিকের স্ত্রীর পরোলোকগমন

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০, ৭.৫৮ পিএম
  • ২১৮ বার পঠিত

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ও দৈনিক ইক্তেফাকের বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক নীহার রঞ্জন সাহার স্ত্রী ও বাগেরহাট বহুমুখি কলেজিয়েট স্কুলের সহকারি শিক্ষিকা পলি রাণী সাহা (৫২) পরলোকগমণ করেছেন। মঙ্গলবার দুপুরে চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে লিভার ও কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন। মঙ্গলবার বিকেলে বাগেরহাট শহরের কেন্দ্রীয় মহাশ্মশানে তার অন্তষ্টক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। মৃত্যুকালে তিনি স্বামী, দুই মেয়ে জামাতাসহ অসংখ্য শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন।

তার এই অকাল মৃত্যুতে বাগেরহাট প্রেসক্লাব, বাগেরহাট ফাউন্ডেশন ও সদর উপজেলা পরিষদ শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে। বিবৃতিদাতারা হলেন, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি এ্যাডভোকেট মোজাফফর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক তালুকদার আব্দুল বাকি, বাগেরহাট ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আহাদ উদ্দিন হায়দার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভীন প্রমূখ।

বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার আব্দুল বাকি বলেন, “গত সোমবার ভোরে আমাদের সহকর্মীর স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা পলি রাণী সাহা শহরের সোনাতলা এলাকার বাড়িতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার দুপুরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তিনি বিটিভি ও ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি এবং বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি জেষ্ঠ্য সাংবাদিক নীহার রঞ্জন সাহার সহধর্মিণি ছিলেন। মঙ্গলবার বিকেলে বাগেরহাট শহরের কেন্দ্রীয় মহাশ্মশানে তার অন্তষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।

জোবায়ের ফরাজী,বাগেরহাট।
তাং.১৪/০৭ /২০২০
মো.০১৮৫০-৬৬৪৭৫২

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil