শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন

বাগেরহাটে সেচ্ছায় হিন্দু স্কুল শিক্ষিকার ইসলাম গ্রহণ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০, ৮.০০ পিএম
  • ১১৪ বার পঠিত

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটে মোংলার সেচ্ছায় হিন্দু থেকে মুসলমান হয়েছেন এক স্কুল শিক্ষিকা। হিন্দু ধর্ম থেকে নব মুসলিম হওয়ার পরও তার সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে হেয়-প্রতিপন্ন হওয়ার নানা অভিযোগ করে তিনি বলেন, “স্কুল জীবন থেকেই মুসলিম ধর্মের প্রতি আমার দুর্বলতা কাজ করতো। কিন্তু ২০০৮ সালে আমার মোংলার ব্রামনমেঠ গ্রামের সুশান্ত’র সাথে বিয়ে হয়।স্বামীর সংসারে মোটামুটি ভালোই চলছিলো আমাদের দাম্পত্য জীবন । কিন্তু কিছুদিন পর হঠাৎ স্বামী সুশান্ত আমার সাথে খারাপ ব্যবহার শুরু করেন।

এর কিছুদিন পর শুরু হয় শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন। আমি গর্ভবতী হওয়ায় অনাগত সন্তানের কথা ভেবে সব নির্যাতন মেনে নিয়ে সংসার করতে থাকি।এরই মধ্যে তার কোল জুড়ে আসে একটি পুত্র সন্তান।কিন্তু তবু থামেনি স্বামীর নির্যাতন। এরপর আমি আমার বাবার বাড়ি চলে আসি, সেখান থেকে আমাকে সে আবার ছলেবলে নিজের ভুল স্বীকার করে নিয়ে আসেন।কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতে আবারও আমাকে মানুষিক ভাবে নির্যাতন শুরু করে আমার স্বামী এবং স্বামীর পরিবারের লোকজন।আমার চাকরির বেতনের টাকা পর্যন্ত নিয়ে যেত সে, তারপরও আমি আমার সন্তানের কথা ভেবে সকল যন্ত্রণা সইতে থাকি।

একর্পযায়ে, আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহন করবো বলে তাকে জানাই কিন্তু সে অপারগতা জানালে আমি নিজেই কোর্টের মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করি, এবং তাকেও মুসলিম হওয়ার জন্য অনুরোধ করি এতে সে আমার উপর আরো ক্ষিপ্ত হয়ে নির্যাতন শুরু করলে আমি তাকে ডিভোর্স দিয়ে চলে আসি, এবং পরে আমি মুসলিম ধর্ম অনুযায়ী মুসলমান একটি শিক্ষিত ছেলের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। কিন্তু এতো কিছুর পরেও সুশান্ত আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য সাংবাদিক ও বিভিন্ন শেণীপেশার মানুষের কাছে আমার নামে ভিত্তি হীন মিথ্যা তথ্য দিয়ে বেড়াচ্ছে”।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil