বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৩৮ অপরাহ্ন

বারুইপাড়া-যাত্রাপুর সড়কে জলাবদ্ধতা,জন-চলাচল বাধাগ্রস্থ

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৫ জুলাই, ২০২০, ৯.০১ পিএম
  • ১১৫ বার পঠিত

জুবায়ের ফরাজী, বাগেরহাট প্রতিনিধি:

বাগেরহাট সদর উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়ন এবং যাত্রাপুর ইউনিয়নের সংযোগ সড়কে মারাত্মক দুরবস্থা দেখা দিয়েছে।বর্ষা মৌসুমে সামান্য বৃষ্টিতেই এটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। কখনও কখনও দূর থেকে এটিকে দেখলে প্রবাহমান নদী বলেও মনে হতে পারে। বারুইপাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ‘বাগদিয়া’ গ্রামের প্রধান সড়ক এটি। যাত্রাপুর বাজার থেকে ৮/১০ টি গ্রামে যাওয়ার একমাত্র সহজ ও প্রধান সড়ক এটি। বিগত কয়েক বছর যাবৎ এই সড়কে তেমন উন্নত মানের কোন মেরামত কাজ হয়নি।

গত অর্থ-বছরে ভৈরব নদীটি খনন করার জন্য নদীর মাঝে বাঁধ তৈরী করাতে বৃষ্টির পানি সরবরাহরে উপযুক্ত ব্যবস্থা না থাকায় এই সড়ক সহ আশপাশের গ্রামের বেশ কিছু অংশে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে এবং রাস্তার বেশ কিছু অংশে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যা পানিতে তলিয়ে যাওয়ার কারনে গর্তগুলি মানুষের নজর আন্দাজ করা সম্ভব হয়ে উঠছে না। ফলে জনসাধারণ প্রতিনিয়তই নানা ধরনের দুর্ঘটনার সম্মুখীন হচ্ছেন। বর্তমানে রাস্তাটি পথচারীদের জন্য খুবই অনিরাপদ ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে,চলাচলের জন্য একমাত্র এই রাস্তাটি ছাড়া এলাকাবাসির বিকল্প কোন সড়ক বা রাস্তা না থাকায় চলাচলে তারা মারাত্বক বিড়ম্বনার সম্মুখীন হচ্ছেন। পথচারীদের মধ্যে বাগদিয়া গ্রামের ইমতিয়াজ উদ্দীন বলেন,“বর্ষা মৌসুমে এ রাস্তাটি আমাদের চলাচলের একমাত্র সড়ক হওয়ায় আমাদের নানা ধরনের ঝামেলা পোহাতে হয়। এই রাস্তাটি পুনঃ সংস্করণ ও উঁচু করা অতি জরুরী হয়ে পড়েছে। সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্র্তৃপক্ষ ও জন-প্রতিনিধিগন বিষয়টি আমলে এনে রাস্তাটি পুনঃ সংস্করণ এর ব্যবস্থা গ্রহণ করে জনসাধারণের চলাচল উপযোগী করে তোলবেন এটা সরকারের কাছে আমাদের জোর দাবী”।

দৈনিক রূপান্তর বাংলাদেশ /জোবায়ের ফরাজী,বাগেরহাট / ০৫-০৭-২০২০ইং মো.০১৮৫০-৬৬৪৭৫২

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil