শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

রংপুরের তিনটি পণ্যের লাইসেন্স বাতিল করেছে বিএসটিআই

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০, ২.৪০ এএম
  • ৯৭ বার পঠিত

মোঃ আরিফ শেখ, রংপুর প্রতিনিধিঃ

লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় রংপুরের দুটি প্রতিষ্ঠানের ৩টি পণ্যের অনুকূলে প্রদত্ত লাইসেন্স বাতিল করেছে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)।

পণ্য তিনটি হলো; গ্রীণ অয়েল অ্যান্ড পোল্ট্রি ফিড ইন্ডাস্ট্রিজের ‘বাসমতি’ ব্র্যান্ডের ফর্টিফাইড এডিবল রাইস ব্রান অয়েল এবং রংপুর ডেইরী এন্ড ফুডস প্রোডাক্টস লিমিটেডের ‘আরডি জুসিলা’ ও ‘আরডি ফজলী’ ব্র্যান্ডের ম্যাংগো ফ্রুট ড্রিংকস।

আজ মঙ্গলবার(১৬ জুন) বিএসটিআই থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিএসটিআই জানিয়েছে, সোমবার (১৫ জুন) বিএসটিআইয়ের সার্টিফিকেশন কমিটির সভায় বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন আইন ২০১৮ এর ১৬(৫) ধারা এবং লাইসেন্সিং এগ্রিমেন্ট মোতাবেক ওই পণ্যগুলোর অনুকূলে দেয়া লাইসেন্সসমূহ বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে রংপুরের তিনটি পণ্য ছাড়াও সাভার, ময়মনসিংহ, নরসিংদী ও চট্টগ্রামের আরও পাঁচটি পণ্যের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

লাইসন্স বাতিল করা পণ্যগুলো হলো- সাভারের আশুলিয়ার ইফাদ মাল্টি প্রোডাক্টস লিমিটেডের ‘ইফাদ সলিড গোল্ড’ ব্র্যান্ডের ফর্টিফাইড এডিবল রাইস ব্রান অয়েল, ময়মনসিংহের শম্ভুগঞ্জের এগ্রোটেক ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের ‘পিউরিভা’ ও ‘রাইপ’ ব্র্যান্ডের ফর্টিফাইড এডিবল রাইস ব্রান অয়েল, নরসিংদীর শিবপুরের গ্রিন ট্রেড হাউজের ‘টেস্টি’ ব্র্যান্ডের ফর্টিফাইড পাম অলিন, চট্টগ্রামের চান্দগাঁওয়ের ‘ওকে’ ব্র্যান্ডের ফর্টিফাইড সয়াবিন তেল ও ফর্টিফাইড পাম অলিন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈধ লাইসেন্স গ্রহণ ব্যতিরেকে এসকল পণ্য বিক্রয়-বিতরণ ও বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপন প্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ক্রেতাসাধারণকে এসব ব্র্যান্ডের পণ্য কেনা থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil