বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৩:০৩ পূর্বাহ্ন

রংপুরে করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরেছেন আরোও চারজন

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৫ জুন, ২০২০, ৯.০৯ পিএম
  • ১৩০ বার পঠিত

মোঃ আরিফ শেখ, রংপুর প্রতিনিধিঃ

রংপুরে ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন আরোও চারজন। এদের মধ্যে পুলিশ, নার্স ও ব্যাংকারসহ বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষ রয়েছেন।
বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) দুপুরে চারজনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে এই হাসপাতাল থেকে মোট ১৪৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন।

করোনামুক্ত হওয়া ওই চারজনকে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ চিকিৎসকরা ফুল ও চিঠির মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি করতালি দিয়ে বিদায় জানান। এর আগে বুধবার (২৪ জুন) আরোও দুইজনকে ছাড়পত্র প্রদান করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এস.এম নূরুন নবী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

ছাড়পত্র প্রাপ্ত ব্যাক্তিরা হলেন রংপুর সোনালী ব্যাংকের স্টাফ জনাব দিলদার হোসেন (৫০) ও জেলা পুলিশ সদস্য মুন্না বাবু(২২), রংপুর মেডিকেল কলেজের সিনিয়র স্টাফ নার্স কোহিনুর বেগম (৪০), গঙ্গাচড়া, রংপুরের বাসিন্দা সাফিয়ার রহমান (৩৫), রংপুর শহরের বাসিন্দা রাজা আলী(২৭) ও জলঢাকা, নীলফামারীর বাসিন্দা জনাব শফিকুল ইসলাম (৫৩)

দিলদার গত ১৩ জুন ও মুন্না বাবু ১৪ জুন, কোহিনুর, সাফিয়ার ও রাজা ১৫ জুন ও শফিকুল ইসলাম ১৭ জুন ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ভর্তি হন।হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এস.এম নূরুন নবী জানান, ছাড়পত্রপ্রাপ্তরা সবাই পুরোপুরি সুস্থ ও করোনামুক্ত। তাদের শরীরে কোভিড-১৯ এর উপসর্গ না থাকায় এবং পর পর দুইবার নমুনা পরীক্ষা করে নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়ায় ছাড়পত্র প্রদান করা হয়েছে। সুস্থ হয়ে উঠার মধ্যে একজন নীলফামারী জেলার জলঢাকার এবং বাকিরা রংপুর জেলার বাসিন্দা।

গত ১৯ এপ্রিল ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালটি চালু হবার পর থেকে (২৪ জুন পর্যন্ত) ১৮৮ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে নতুন চারজনসহ ১৪৫ জন সুস্থতার ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখানে মারা গেছেন ৯ জন। বর্তমানে হাসপাতালে ৩১ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দৈনিক রূপান্তর বাংলাদেশ / আরিফ  শেখ/ রংপুর, ২৫-০৬-২০২০ ইং

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil