শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে ঈদে মিল্লাদুন্নবী উপলক্ষে জশনে জুলুছের শোভাযাত্রা ভৈরবে নিরাপদ সড়ক চাই আয়োজনে লিফলেট ও মাস্ক বিতরণ শক্তি দিয়ে নয় মানুষের ভালবাসা দিয়ে জয়ী হতে চাই – চেয়ারম্যান প্রার্থী আরেফিন চৌধুরীর ভৈরবে তেয়ারীরচরে এডভোকেট আবুল বাসারের নির্বাচনী গণসংযোগ ও মতবিনিময় সভা ভৈরবের সাদেকপুর ইউনিয়নবাসীর সাথে সরকার সাফায়েত উল্লাহ’র নির্বাচনী মতবিনিময় সভা ভৈরবে ৩ প্রতিষ্টান সিলগালা ৬০ লাখ টাকার জাল ধ্বংস বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউ কে উদ্যোগে আলোচনা সভা ও নৈশভোজ অনুষ্ঠান শয়তানের চ্যালেঞ্জ ও আল্লাহর ক্ষমার নমুনা ভৈরবে র‌্যাবের হাতে ভারতীয় ৫ লক্ষাধিক ট্যাবলেট ও ৯৭ পিস ভারতীয় কাতান শাড়ী উদ্ধার ভৈরবে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন

হাতকড়াসহ আসামি পলায়ন – দুই কনস্টেবল ক্লোজড

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২০, ৭.৪৮ পিএম
  • ৮৯ বার পঠিত

মোঃ আরিফ শেখ, রংপুরঃ চুরি মামলার আসামি হাতকড়াসহ পালিয়ে যায় রংপুরের বদরগঞ্জে। মাহমুদ হাসান চৌধুরী নামের সেই আসামি পালিয়ে যাওয়ার ২৩ ঘন্টা পর পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে।

বদরগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বিষ্ণুপুর এলাকার রবিউল ইসলাম চৌধুরীর ছেলে। সোমবার একটি চুরি মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। পরদিন বদরগঞ্জ থানার কনস্টেবল কামাল পাশা ও দেলোয়ার হোসেন দুপুরে একটি ইজিবাইকে করে তাকে নিয়ে আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা হন। দুপুর দেড়টায় তাকে বহনকারী ইজিবাইকটি বদরগঞ্জ-রংপুর রোডের ভাঙা মাল্লি ব্রিজে উঠলে মাহমুদুল হাসান কৌশলে হাতকড়াসহ পালিয়ে যান। এরপর বদরগঞ্জ থানা পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় চিরুনী অভিযান চালিয়েও সফল হয়নি। অবশেষে বুধবার(২৯এপ্রিল) উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের অরুন্নেছা বাজার থেকে তাকে হাতকড়াসহ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

বদরগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত আরিফ আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কর্তব্যে অবহেলার কারণে কনস্টেবল কামাল পাশা ও দেলোয়ার হোসেনকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil