বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন

চেয়ারম্যান বাদলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার : মাদকের বিরুদ্ধে তার সবসময় কঠোর অবস্থান

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৭ মে, ২০২০, ৬.৫৮ পিএম
  • ৫০ বার পঠিত

মোহাম্মদ ইকবাল হোসাঈন: সোনাগাজীর মঙ্গলকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাদলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষডযন্ত্র শুরু করেছে একটি কুচক্রি মহল, মাদক চুরি ডাকাতি ও সামাজিক অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানের কারনেই মূলত এমন অপপ্রচার শুরু হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

মঙ্গলকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই এলাকায় মাদক সন্ত্রাস চুরি ডাকাতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান ঘোষনা করেন বাদল, গ্রাম পুলিশ মেম্বার ও মান্যগন্য ব্যাক্তিদের সহযোগিতা নিয়ে মাদকের স্পট গুলো ভেঙ্গে দেয়া সহ চুরি ডাকাতি রোধে ব্যাপক ভূমিকা পালন করেন, ইতোমধ্যে অনেক মাদক কারবারি ও চোর সন্ত্রাসীকে পুলিশে দিয়েছেন।
চেয়ারমান মোশারফ হোসেন বাদলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় যখন মঙ্গলকান্দি ইউনিয়ন সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত এলাকায় পরিনত হতে যাচ্ছে এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে একটি কুচক্রি মহল পরিকল্পিত ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ ভিবিন্নভাবে অপ-প্রচার করে যাচ্ছে।

এসব বিষয় নিয়ে যোগাযোগ করলে চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন বাদল এই প্রতিবেদক কে জানান, সমালোচকদের অপ-প্রচার ও সমালোচনায় আমি পিচপা হবোনা, আমি জনগনের স্বার্থে কাজ করে যাবো, জননেতা নিজাম উদ্দিন হাজারীর নির্দেশনায় ইউনিয়ন কে মাদক সন্ত্রাস ও চোর ডাকাত মুক্ত করতে এবং জনগনের শান্তি সম্পৃতি রক্ষার স্বার্থে নিবেদিত থাকবো।
চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন বাদল আরো বলেন আমার ইউনিয়নে চিহ্নিত কিছু লোক পরিকল্পিত ভাবে আইনশৃঙ্খলার অবনতি করে যাচ্ছে, এদের অন্যতম হলো সাবেক এক চেয়ারম্যানের ছেলে সুজন,রাজাপুর গ্রামের সোহাগ, সমপুর গ্রামের মোমিন, সে মাদক কারবারি গুরা মিয়া সবুজের মাদক বহনকারি হিসাবে পরিচিত। এদের কে আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছে অত্র ইউনিয়নের অধিবাসি উপজেলা যুবলীগের একজন সহ-সভাপতি এবং বিএনপির কিছু চিহ্নিত লোক।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazar1254120z

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

Founder Md. Sakil